রোববার   ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯   পৌষ ১ ১৪২৬   ১৭ রবিউস সানি ১৪৪১

গো বিডি ২৪

মধ্যরাতে বান্ধবীর সঙ্গে অন্তরঙ্গ স্বামী, হাতেনাতে ধরায় স্ত্রীকে ম

প্রকাশিত: ২৯ আগস্ট ২০১৯  

সমাজের মূল ভিত্তি হল পরিবার। বিবাহ হল প্রত্যেক ধর্মের পরিবার গঠনের পবিত্র বিধান। সে জন্য বিবাহ বহির্ভূত নারী-পুরুষের সম্পর্ক সকল ধর্মেই নিষিদ্ধ। এই পরকীয়া শুধু একটি সংসারকে ধ্বংস নয়, একটি সমাজ জাতি ও রাষ্ট্রকে কলুষিত করে দিতে পারে।

বিবাহের মত পবিত্র বন্ধনের মাধ্যমে যে সম্পর্কের সূচনা হয় বর্তমানে তা অনায়াসে ভেঙ্গে যাচ্ছে পরকীয়া নামক ব্যাধির কারণে। শুধু সংসার ভাঙা নয়, পরকীয়ার কারণে হত্যাকাণ্ডের ঘটনাও ঘটে থাকে। এমনই একটি পরকীয়ার ঘটনা ঘটেছে ভারতের পাটুলিতে।


ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে জানা যায়, স্বামী যোগাযোগ রাখা বন্ধ করে দিয়েছিলেন আচমকাই। স্ত্রী খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, নিজের ছোটবেলার এক বান্ধবীর সঙ্গে আলাদা বাড়ি ভাড়া নিয়ে থাকতে শুরু করেছেন স্বামী। স্বামীকে হাতেনাতে ধরতে গিয়ে আক্রান্ত হলেন এক যুবতী। স্বামী ও তার প্রেমিকা তাকে মারধর করেছে বলে অভিযোগ।

বছর ছয়েক আগে শোভাবাজারের বাসিন্দা শুভঙ্কর দের সঙ্গে বিয়ে হয় গড়িয়ার বাসিন্দা মিঠুর। তাদের এক ছেলেও রয়েছে।

মিঠুর বয়ান অনুযায়ী, শেষ তিন মাস ধরে শুভঙ্কর তার সঙ্গে কোনও যোগাযোগ রাখছিলেন না। মিঠু তখন প্রতিবেশী ও বন্ধুবান্ধবের থেকে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, শুভঙ্কর পাটুলিতে অন্য এক তরুণীর সঙ্গে ঘর ভাড়া নিয়ে থাকছেন। ওই তরুণীর নাম শুভমিতা দে।

খবর পেয়ে বুধবার মধ্যরাতে পাটুলির ওই ভাড়া বাড়িতে হানা দেন মিঠু। অভিযোগ, তাদের আপত্তিকর অবস্থায় ধরে ফেলেন তিনি। বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের প্রতিবাদ করায় মিঠুকে শুভমিতা ও শুভঙ্কর মারধর করে বলে অভিযোগ।

পরে মিঠুর আর্তনাদ শুনতে পেয়ে স্থানীয়রা ছুটে যান। মিঠুকে উদ্ধার করেন। পাশাপাশি শুভঙ্কর ও শুভমিতাকে মারধর করে পুলিসের হাতে তুলে দেন। পুলিস ওই দুজনকে গ্রেফতার করেছে।

Loading...
এই বিভাগের আরো খবর