শুক্রবার   ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৮ ১৪২৬   ১৫ রবিউস সানি ১৪৪১

গো বিডি ২৪

এক স্ত্রী নিয়ে দুই স্বামীর টানাটানি

প্রকাশিত: ১৫ নভেম্বর ২০১৯  

এক নারী বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ ছিলেন প্রায় ১৫ বছর। এরপর পরকিয়ায় জড়িয়ে প্রথমজনকে তালাক দিয়ে বিয়ে করেন পরকীয়া প্রেমিককে। কিন্তু এখানেও তিনি দীর্ঘদিন সংসার করেন নি। তবে এবার দ্বিতীয় স্বামীকে তালাক না দিয়েই আবার সংসার করতে ফিরে গেছেন প্রথম স্বামীর কাছে।


মানিকগঞ্জের সাঁটুরিয়া থানায় কাণ্ডটি ঘটিয়েছেন নীলুফা ইয়াসমিন নামের এই নারী। তার প্রথম স্বামীর নাম মফিজুল ইসলাম, দ্বিতীয় স্বামীর নাম শহিদুল ইসলাম। এ বিষয়ে নিলুফারের দ্বিতীয় স্বামী মো: শহিদুল ইসলাম জানান, আমার বিয়ে করা স্ত্রী আমাকে তালাক না দিয়েই আমার নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে অন্য পুরুষের ঘর করছে।


জানা যায়, পরকীয়া সম্পর্কের কারণে গত বছরের ১৭ই মার্চ তারিখে নিলুফা ইয়াসমীন প্রথম স্বামী মফিজুল ইসলামকে তালাক দিয়ে ওই বছরের ১১ জুলাই শহিদুল ইসলামকে কাজী অফিসে রেজিস্টার করে বিয়ে করেন। দীর্ঘ এক বছর দ্বিতীয় স্বামী শহিদুলের ঘর সংসার করার পর একপর্যায়ে তাকে (শহিদুলকে) তালাক না দিয়ে পুনরায় প্রথম স্বামী মফিজুল ইসলামের ঘর সংসার করছে বলে অভিযোগ ওঠে। বর্তমানে অভিযুক্ত নারী নিলুফা ইয়াসমীন তার প্রথম স্বামীর সাথে সংসার করছেন।


মানিকগঞ্জ জেলা জজ কোর্টের আইনজীবী অ্যাড. জাহিদুর রহমান তালুকদার বাবু জানান, ইসলামী শরিয়াহ এবং দেশীয় মুসলিম পারিবারিক আইন অনুযায়ী একসাথে একজন নারীর একাধিক স্বামী অনুমোদন করে না। প্রথম স্বামী মফিজুল ইসলামের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তাকে পাওয়া যায়নি।  সূত্র: বিডি২৪লাইভ

Loading...
এই বিভাগের আরো খবর